এবার সব গাড়িই চলবে বিদ্যুতে




এবার সব গাড়িই চলবে বিদ্যুতে

স্টার বাংলা ডেস্ক : পেট্রোল-ডিজেল চালিত গাড়িতে ইতি টেনে এবার গোটা দেশে বিদ্যুতেই গাড়ি চালানোর ভাবনা কেন্দ্রের।  ২০৩০-এর মধ্যে দেশে আর একটিও গাড়িতে যাতে পেট্রল বা ডিজেল ব্যবহার করা না হয়, সে পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে এখন থেকেই।

পেট্রোপণ্যের সঙ্কটে গোটা দুনিয়াই বিকল্প শক্তির উৎসের দিকে ঝুঁকছে।  ভারতও তার ব্যতিক্রম নয়।  একাধিকবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সৌরশক্তি ব্যবহারের উপর জোর দিয়েছেন।  এদিকে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে পেট্রোপণ্যের দাম ওঠা-নামাও দেশে নিরন্তর এক সমস্যার বিষয়।  অন্যদিকে পাম্পগুলির বিভিন্ন দাবি-দাওয়া ধর্মঘটের হুমকি তো লেগেই আছে।  সমস্যা সমাধানে পেট্রল-ডিজেলও হোম ডেলিভারি দেওয়ার কথা ভেবেছিল কেন্দ্র।  তবে এবার এ পালা চুকিয়ে বিদ্যুতেই সমস্ত গাড়ি চালানোর ভাবনা।  বিদ্যুৎমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল এক অনুষ্ঠানে জানিয়েছেন, ইলেক্ট্রিক ভেহিকেল দেশে চালু করা হবে বেশ বড় মাত্রায়।  ২০৩০-এর মধ্যে যাতে আর একটিও পেট্রোল-ডিজেল চালিত গাড়ি বিক্রি না হয়, সে পরিকল্পনা নিয়েই এখন থেকে এগনো হবে।  এতে পেট্রোপণ্যের বিলও কমবে অনেকটাই।

ইলেকট্রিক ভেহিকেল ইন্ডাস্ট্রিকে সরকার প্রাথমিকভাবে সাহায্য করবে এমনটাই মত বিদ্যুৎমন্ত্রীর।  খানিকটা স্থায়িত্ব দিতে পারলেই এই শিল্প গতি পাবে ও দেশকে গতিশীল করে তুলতে পারবে বলেই তাঁর বিশ্বাস।  নীতি আয়োগের সঙ্গে ভারী শিল্প মন্ত্রক এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় কথাবার্তা বলছে বলেও জানান তিনি।  তবে এতদিনের সংস্কার যে একেবারে যাওয়ার নয়, সে কথাও তিনি জানেন।  তাই তাঁর ভরসা, যদি দাম কম বা সাধ্যের মধ্যে রাখা যায়, তবে মানুষ পেট্রোল-ডিজেল ছেড়ে ইলেকট্রিক ভেহিকেলের দিকেই ঝুঁকবে।  আগামী এক দশকে যে এতে দেশের পরিবহণের চিত্রটি অনেকটাই বদলে যাবে মন্ত্রীর কথাতেই সে ইঙ্গিত মিলছে।  আপাতত টার্গেট নেওয়া হয়েছে ২০৩০।  মন্ত্রীর আশা, তার মধ্যেই।