মুসলিম হত্যায় ভারতে বিক্ষোভ




মুসলিম হত্যায় ভারতে বিক্ষোভ

অান্তজাতিক ডেস্ক: ভারতে একের পর এক মুসলমানদের পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় বিক্ষোভ করেছেন সেদেশের নাগরিক সমাজ। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, বৃহস্পতিবার ‘নট ইন মাই নেম’ নাম দিয়ে নাগরিক সমাজ এই প্রতিবাদ বিক্ষোভ করেন। যেখানে অংশ নেন সকল স্তরের মানুষও।

বেসরকারী পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ২০১৫ সাল থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে অন্তত ১৩টি মুসলিম হত্যার ঘটনা ঘটেছে। দেখা গেছে হামলাকারীরা মুসলমান কোনও ব্যক্তিকে টার্গেট করেই এই কাজ করেছে।

বিবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ৩ মাসে এভাবে গণপিটুনিতে হত্যা করা হয়েছে অন্তত ৬ জন মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষকে। এই নেক্কারজনক কাজের প্রতিবাদেই ‘নট ইন মাই নেম’ নাম দিয়ে সামাজিকমাধ্যমে খবর ছড়িয়ে দিয়ে দিল্লি, কোলকাতাসহ ভারতের বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদে নামেন সাধারণ মানুষ।

মুসলমানদের চিহ্নিত করে গণপিটুনির ঘটনাগুলির বিরুদ্ধে ‘নট ইন মাই নেম’ হ্যাশ ট্যাগও চালু করা হয়েছে। দক্ষিণ কলকাতার একটি খোলামেলা বিপনি বিতান চত্বরে এভাবেই কয়েকশ’ মানুষ জড়ো হয়েছিলেন শুধুমাত্র একটি হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ বা ফেসবুক পোস্ট দেখে।

কলকাতায় প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজকদের অন্যতম অঞ্চিতা ঘটক বলছিলেন, “চতুর্দিকে যেসব ঘটে চলেছে তাতে সত্যিই আমরা বিচলিত।” তিনি উদ্বেগ জানিয়ে বলেন, দেশে হিন্দুত্বের একটা আগ্রাসন শুরু হয়েছে বলে  তাদের মনে হচ্ছে। একই সঙ্গে উগ্র জাতীয়তাবাদও তৈরী করা হচ্ছে, যার সঙ্গে হিন্দু ধর্মকে জুড়ে দেওয়া হচ্ছে।

সমাবেশে থাকা কলেজ শিক্ষক সম্রাট সেনগুপ্ত বলেন, তার মতে সাম্প্রতিক সময়ে মুসলমানদের চিহ্নিত করে গণপিটুনি দিয়ে আহত এমনকি মেরে ফেলার ঘটনাও খুব বেশী ঘটতে শুরু করেছে। তার মতে এক শ্রেণীর মানুষের হাতে একরকম ক্ষমতায়ন হয়েছে, যাদের মধ্যে প্রচন্ড মুসলিম বিদ্বেষ আগে থেকেই ছিল। এই ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকারের নিরব ভূমিকারও সমালোচনা করেন তিনি।

সমাবেশে প্রগতিশীল লেখক, বুদ্ধিজীবি, কবি, গায়ক,  ছাত্রছাত্রীসহ সকল শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেন। সমাবেশে ছিলেন কলকাতার বেশ কিছু মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষও।

তাদের একজন মোহাম্মদ সিদ্দিক জানান, “পশ্চিমবঙ্গে অন্তত হামলার ভয়টা নেই। কিন্তু উত্তরপ্রদেশ বা মধ্যপ্রদেশে আত্মীয় ও বন্ধুদের কাছ জেনেছি ওরা খুবই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। গরু রক্ষার নামে হোক কিংবা অন্য যে কোনও নামেই হোক, কেন্দ্রীয় সরকারের তো দায়িত্ব এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া। এই পরিস্থিতি সত্যিই মেনে নেওয়া যায় না।”

ভারতের বিভিন্ন স্থানে হওয়া মঙ্গলবারের প্রতিবাদ সমাবেশগুলি কোনও রাজনৈতিক অথবা অরাজনৈতিক সংগঠন আয়োজন করেনি বলেই জানিয়েছে বিবিসি। সমাবেশের কোথাও কোন সংগঠনের প্রতিনিধিত্বকারী ব্যানার পোস্টারও দেখা যায়নি। প্রতিবাদে সামিল হওয়া সবার বুকে ঝোলানো প্ল্যাকার্ডে একটাই কথা লেখা ছিল ‘নট ইন মাই নেম’! এক সময়ে যেমন যুক্তরাষ্ট্রে ভিয়েতনাম যুদ্ধবিরোধী প্রতিবাদ সভাগুলিতে বলা হত।