শত শত গুম-গোপন আটক: এইচআরডব্লিউ




শত শত গুম-গোপন আটক: এইচআরডব্লিউ

স্টার বাংলা নিউজ: বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিরুদ্ধে শত শত মানুষকে গুম এবং গোপন স্থানে আটকে রাখার অভিযোগ এনেছে নিউইয়র্কভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডব্লিউ)। বুধবার সংস্থাটির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ অভিযোগ করা হয়েছে। ২০১৩ সাল থেকে তাদের অবৈধভাবে আটক এবং গোপন স্থানে রাখার অভিযোগ তুলে প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, বাংলাদেশ সরকার হয় এসব অভিযোগ নাকচ করে আসছে অথবা অভিযোগের বিপরীতে নীরব ভূমিকা পালন করছে।

অভিযোগের তদন্ত, নিখোঁজদের পরিবারের কাছে ঘটনার ব্যাখ্যা সরবরাহ আর জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে এইচআরডব্লিউ।

ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যদের ন্যায়বিচার নিশ্চিতে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনকে তদন্তকাজে নিয়োগেরও আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

৮২ পৃষ্ঠার প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘২০১৩ সালের পর থেকে বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অবৈধভাবে শত শত ব্যক্তিকে আটক করে রেখেছে। বিরোধী রাজনৈতিক কর্মীসহ অনেককেই গোপন স্থানে আটক করে রাখা হয়েছে।’

এই ব্যাপক জোরপূর্বক গুম-অপহরণ অনতিবিলম্বে বন্ধ এবং অপহরণের বিভিন্ন অভিযোগের স্বাধীন ও নিরপেক্ষ তদন্ত করার আহ্বান জানিয়েছে এইচআরডব্লিউ।

একই সঙ্গে সংস্থাটি দাবি করেছে, অপহৃত বা গুমকৃত সদস্যদের পরিবারের প্রশ্নের জবাব দিতে হবে। এ রকম গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের সঙ্গে জড়িত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে হবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, শুধুমাত্র ২০১৬ সালেই অন্তত ৯০ জন জোরপূর্বক অপহরণ ও গুমের শিকার হয়েছেন। অনেককে কয়েক সপ্তাহ বা কয়েক মাস গোপন আটকাবস্থা থেকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে।

এইচআরডব্লিউ অনুসন্ধান করে দেখেছে, এদের মধ্যে ২১ জনকে পরবর্তীতে হত্যা করা হয়েছে। অন্য নয়জনের কী হাল তা জানা যায়নি।