লরির জন্য হাসো’




লরির জন্য হাসো’

স্টার ববাংলা নিউজ: মৃত্যু মানেই কান্নার রোল। ব্র্যাডলি লরির মৃত্যু সেই রোল পড়ে গেছে ফুটবল বিশ্বে। গত শুক্রবার কান্সারের সঙ্গে লড়াইয়ে হার মেনে স্বর্গবাসী হয়েছেন সান্ডারল্যান্ড ভক্ত লরি। ৬ বছর বয়সী এই ছোট্ট শিশুটির মৃত্যুতে কেঁদেছেন ফুটবল বিশ্বের অনেকেই। কেউ হাউমাউ করে অঝোরে কেঁদেছেন। কারো বুকের ভেতরটা দুমড়ে-মুষড়ে দিয়েছে চাপা কান্না। তবে আর কান্না নয়, প্রয়াত লরির জন্য হাসার আহ্বান জানালেন তার বন্ধুরা! কথায় নয়, কণ্ঠে মূর্ছনার সুর তুলে, গানে গানে। বন্ধু লরির বিদেহী আত্ম্যার প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ জানাতে তার স্কুলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল তার সহপাঠিরা। অনুষ্ঠানে বন্ধু লরির জন্য স্কুলের ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা  মিলে গাইল অসাধারণ এক গান-‘লরির জন্য হাসো’।

আগামীকাল শুক্রবার হার্টলপুলের ব্ল্যাকহল কোলিয়ারির সেন্ট জোসেফ চার্চে অনুষ্ঠিত হবে লরির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া। তার পরিবার ও শুভাকাঙ্খিরা এখন সেই আয়োজন নিয়েই ব্যস্ত। তার আগে লরির প্রতি ব্ল্যাকহল কোলিয়ারির প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের এই বিশেষ শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন অন্য রকম সারা ফেলেছে ফুটবল বিশ্বে। বন্ধুর প্রতি ছোট ছোট শিশুদের সম্মানবোধ দেখে সবাই অভিভূত। টুইটার, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম-যে যেভাবে পারছেন বন্ধু লরির প্রতি কচি কচি ওই ছেলে-মেয়েদের শ্রদ্ধাবোধকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন।

একজন যেমন লিখেছেন, ‘আসলে তোমরা সবাই সুপারহিরো। তোমাদের জন্য খুবই গর্বিত হবে স্বর্গবাসী ব্র্যাডলি লরি।’ আরেকজন লিখেছেন, ‘ওয়াও, আমি শিহরিত। খুব সুন্দর। ওই শিশুদের এবং শিক্ষকদের ঈশ্বর মঙ্গল করুন। ব্র্যাডলি লরি এটা দেখে অবশ্যই গর্ব বোধ করবে।’ অন্য আরেকজন লিখেছেন, ‘অভিনন্দন ছেলে-মেয়েরা। খুবই সুন্দর গান।’

মৃত্যুর ওপাড়ে চলে যাওয়া লরি কি এসব দেখতে পাচ্ছে? দেখতে পারলে অবশ্যই বন্ধুদের জন্য গর্বে বুকটা ভরে উঠবে তার!